Logo
শিরোনাম
সাদুল্যাপুর উপজেলার ছাএলীগের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান চঞ্চলের আয়োজনে রান্না করা খাবার ও ইফতার বিতরণ! এসপি হিসেবে পদোন্নতি পেলেন মাকসুদা আক্তার খানম পিপিএম! May International Labor Day 2021 Be a Success. কোভিড-১৯ করোনা মহামারিতে অসহায় দুস্থ মানুষের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ! কাশিমপুরে কারারক্ষী ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার! বাসন থানা কর্তৃক”অপহরণকৃত ৩.৫ বছরের শিশু সন্তান উদ্ধার ও আসামী গ্রেপ্তার! গুলশানের ফ্ল্যাট থেকে সুন্দরী ছাত্রীর লাশ উদ্ধার, কি আছে মামলার এজহারে– দোকান মালিক নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময়কালে আইজিপি করোনা সংক্রমণ রোধে মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে কেনাকাটা নি‌শ্চিত করার আহবান! বগুড়া ডিবির অভিযানে ইফাদ গ্রুপের প্রায় ৪৫ লক্ষ টাকার মালামালসহ আন্তঃজেলা কাভার্ড ভ্যান ডাকাত দলের মূলহোতা সহ ৬ ডাকাত সদস্য গ্রেফতার, লুন্ঠিত মালামাল সহ কাভার্ড ভ্যান উদ্ধার! গাড়ী মোবাইল নিয়ে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি করার সময় ২ মহিলাসহ ৪ ব্যক্তি আটক!

সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বৃদ্ধির দাবি

প্রায় ৫ বছর আগে সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন দ্বিগুণ বাড়িয়ে সর্বশেষ জাতীয় বেতনস্কেল ঘোষণা করা হয়। এরই মধ্যে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বমুখীনতার প্রেক্ষিতে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য তিনটি ‘বিশেষ ইনক্রিমেন্ট’ ও ‘নবম বেতন কমিশন’ গঠনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে আবেদন করেছে বাংলাদেশ সচিবালয় প্রশাসনিক কর্মকর্তা কল্যাণ সমিতি।

অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে, গত ১ ডিসেম্বর বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অর্থ সচিবের কাছে একটি চিঠি পাঠিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। করণীয় ঠিক করতে অর্থ বিভাগ এ বিষয়ে বিশ্লেষণও শুরু করেছে।

জানা গেছে, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জীবনযাত্রার মান ও ব্যয় বিবেচনায় নিয়ে ২০১৫ সালে জাতীয় বেতনস্কেল ঘোষণা করা হয়। পাশাপাশি মুদ্রাস্ফীতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ভবিষ্যৎ বেতন-ভাতা নির্ধারণ-সংক্রান্ত একটি মন্ত্রিসভা কমিটি গঠনের জন্যও প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দেন। এর প্রেক্ষিতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ২০১৭ সালের ৯ মে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিবকে (সমন্বয় ও সংস্কার) আহ্বায়ক করে নয় সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়।

সূত্র জানায়, বাংলাদেশ সচিবালয় প্রশাসনিক কর্মকর্তা কল্যাণ সমিতির দাবি, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছ থেকে সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিতের লক্ষ্যে সরকার তাদের জীবনযাত্রার মান, আয়-ব্যয়ের সঙ্গতি ও মুদ্রাস্ফীতিসহ অন্য নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে জাতীয় বেতন কমিশন কার্যকরের এক বা দুই বছর আগে বিভিন্ন সময় মহার্ঘ ভাতা প্রদান করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় অর্থ বিভাগ ১৯৮২, ২০০৩, ২০০৮ ও ২০১৩ সালে সরকারি সব কর্মকর্তা-কর্মচারীদের গড়ে ২০ শতাংশ হারে মহার্ঘ ভাতা দেয়া হয়েছে।

সচিবালয় প্রশাসনিক কর্মকর্তা কল্যাণ সমিতি বলছে, জাতীয় বেতনস্কেল, ২০১৫ জারি হওয়ার পর প্রায় পাঁচ বছর অতিবাহিত হতে চলছে। ইতোমধ্যে বিদ্যুৎ বিল, গ্যাস বিল, কল্যাণ ফান্ড, যৌথবীমা, পরিবহন খরচসহ অন্যান্য বিল কয়েকগুণ বেড়েছে। এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেসরকারি বাসাভাড়া, পরিবহন, চিকিৎসা খরচ, ছেলে-মেয়েদের লেখাপড়ার খরচসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য অনেক গুণ বেড়েছে।

এছাড়া বর্তমান বেতনস্কেলে টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড সুবিধা না থাকায় নিম্ন বেতনভুক্ত কর্মচারীদের সংসার পরিচালনা করতে আরও বেশি হিমশিম খেতে হচ্ছে । দ্রব্যমূল্যের এ ঊর্ধ্বগতির বিষয়টি বিবেচনা করে আপাতত তিনটি ‘বিশেষ ইনক্রিমেন্ট’ ও ‘নবম বেতন কমিশন’ গঠনের জন্য অনুরোধ জানিয়েছে সমিতি।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সরকারি কর্মচারীদের ভবিষ্যৎ বেতন-ভাতা নির্ধারণ ও পরিবর্ধনের বিষয় পর্যালোচনা-সংক্রান্ত কমিটির সুপারিশমালা, ২০১৫ কার্যকর হওয়ার পর থেকে অদ্যাবধি জীবনযাত্রার ব্যয় ও মুদ্রাস্ফীতির বিষয়টি বিবেচনা করতে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আপাতত তিনটি ‘বিশেষ ইনক্রিমেন্ট’ ও ‘নবম বেতন কমিশন’ গঠনের জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost