Logo

মধুর কোন জন্ম পরিচয় নাই !

জনাব মোঃ মোস্তফা কামাল দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী:-
১ মধুর কোন জন্ম পরিচয় নাই এবং মধুর কোন জন্ম পরিচয় নাই এই কথা কেবল কতো টুকু সত্যি হইতে পারে অথবা গ্রহন জুজ্ঞ এবং এবার একটু ভালো বাবে চিন্তা বাবনা করিয়া অথবা গবেষণা করিয়া দেখা জাক আমার খুদ্র জ্ঞানে কি বলে
২ দ্বিতীয় অপশন এবং মধু হচ্ছে কেবল বাংলা বাসায় প্রিয় বাক্য অথবা ইসলামের দলিল অনুস্বারে স্ববার উপরে অথবা প্রিয় খাদ্য হচ্ছে কেবল মধু আর দুধ এবং এই দুইয়ের বিতরে আগে হচ্ছে কেবল মধু কেন না কোন নব জাতক জন্ম হবার সাথে সাথেই আগে নব জাতকের মুখে দেওয়া হয় মধু আর মধুর পরে নব জাতকের মুখে দেওয়া হয় মায়ের স্তন অথবা দুধ এবং জাহার কারনে মধুর নাম টা কেবল আগে আসে
৩ তৃতীয় অপশন এবং মধুর জন্ম টা কেবল শুধু ফুলেই নয় মধুর জন্ম জন্ম হয় কেবল নানা কিছুই মিলিয়ে এবং যদি বলেন যে মধুর জন্ম শুধু ফুলের মধ্যে তাহা হইলে কেহ মধু মুখে দিয়ে বলতে পারবেন যে এই মধু টুকু অমুক ফুল হইতে আহরন করা হইয়াছে আমি জানি এই কথা কেহ বলিতে পারিবেন না তাহার কারন হচ্ছে মৌ মাছি মধুর চাক বাধিয়া নানা রকমের ফুল হইতে বিন্দু বিন্দু করিয়া মধু সংরহ করিয়া থাকে অথবা একটি মধুর চাকে হাজারে হাজারে রকমের ফুল হইতে মধু সংরহ করিয়া মধুর চাকে মধু জমা করিয়া থাকে এবং জাহার কারনে আপনারা কেহ বলিতে পারিবেন না যে এই মধু টুকু অমুক ফুল হইতে সংরহ করা হইয়াছে এবং মৌ মাছি নানা রকমের ফুল হইতে যখন মধু সংরহ করিয়া আনিয়া মধুর চাকে জমা করিয়া থাকে তখন সকল ফুলের মধুই কেবল এক সাথে মিশিয়া একই সাদের হইয়া জায় এবং জাহার কারনে মধুর বিশেষ কোন রকম বিন্নও স্বাধ নাই বল্লেই চলে এবং জাহার কারনে উপরে বর্ণিত কথায় বলা হইয়াছে যে মধুর কোন জন্ম পরিচয় নাই
৪ চতুর্থ অপশন এবং মধু শুধু ফুল হইতে জন্ম হইয়া থাকে এই কথা টা কেবল মিথ্যা এবং তাহার প্রমান হচ্ছে কেবল এই আপনারা দেখবেন আমাদের দেশে সাদারন্ত বর্ষা কালে গ্রামে গঞ্জের হাট বাজারের দারে কাছে ছোট বড় গাছ গুলাতেই অনেক মধুর চাক বস্তে দেখা জায় এবং আমাদের দেশে গ্রামে গঞ্জে সাদারন্ত বর্ষা কালে মাঠে চরে চঞ্চালে শুধু কেবল পানি আর পানি এবং বর্ষার মৌসুমে আমাদের দেশে পানিতে বিশেষ কোন রকম ফসলাদি হয়না বলিয়াই বিশেষ কোন ফুল দেখা জায়না এবং জাহার কারনে আমাদের দেশের গ্রামে গঞ্জের হাট বাজারের পাসের ঐ ছোট বড় গাছ গুলাতে জেই মধুর চাক গুলা বসিয়াছে ঐ মধুর চাক গুলাতে মধুর পরি বর্তে পাওয়া জায় শুধু গুরের সিরা অথবা মিষ্টির দোকানের মিষ্টির সিরা এবং আমাদের দেশের মধুর চাকে সাদারন্ত শুকনা মৌসুমেও কেবল মধুর চাকে মধুর সাথে মিশ্রিত গুরের সিরা অথবা মিষ্টির মিশ্রিত হইয়া থাকে তাহার কারন হচ্ছে মধু মাছি যখন নিজের বাসা তেগ করিয়া মধু আহরন করিতে বাহির হয় তখন যদি ঐ মধু মাছির সামনে আগে পরে গুরের হারি অথবা মিষ্টির দোকান তখন আর সেই মধু মাছি বিশেষ করিয়া অলসতার কারনে সে কষ্ট করিয়া দূরে ফুল হইতে মধু সংরহ করিতে না জাইয়া কেবল ঐ গুরের হারি হইতে অথবা মিষ্টির দোকান হইতে গুরের সিরা আর মিষ্টির সিরা নিয়ে কেবল মধুর কেক বর্তি করিতে থাকে এবং ঐ মিষ্টির সিরা যখন মধুর সাথে মিসিয়া জায় তখন মধুর সাদ আর মিষ্টির সিরার সাদ এক হইয়া জায় ইহাতে কেবল কোন রকম বুল নাই তবে যদি গুরের হারি হইতে গুরের সিরা নিয়ে মৌ চাক বর্তি করিয়া থাকে আর ইহাতে বিশেষ কোন রকম ফুলের মধু না থাকে তাহা হইলে কেবল ঐ মধু হইতে শুধু গুরের গন্দই পাওয়া জায় কিন্তু গুরের সিরাও সাস্থের জন্য বিশেষ কোন রকম ক্ষতি কর বলে মনে হয়না তাহার কারন হচ্ছে এই যদি গুরের সিরা সাস্থের জন্য ক্ষতি কর হইত তাহা হইলে মৌ মাছি ঐ গুরের হারি হইতে গুরের সিরা আনিয়া মৌ কেক বর্তি করিতনা আর মৌ মাছির বাচ্ছাদের খাওয়াইত না এবং এখানেও দেখা গিয়েছে মৌ মাছি নিজের বাচ্ছাদের কে গুরের সিরা সংরহ করিয়া আনিয়া নিজের বাচ্ছাদের কে খাওয়াইয়া থাকে কিন্তু ইহাতে করিয়া মৌ মাছির বাচ্ছার বেলায় বিশেষ ক্ষতিকর হইলে তো মৌ মাছির বাচ্ছা মারা জাইত আর ইহাই যদি হইত তাহা হইলে কেবল কখনই মৌ মাছি ফুলের মধু বেতিত অহ্ন কিছু সংরহ করিয়া মৌ চাক বরতি করিত না অথবা কখনোই গুরের সিরা অথবা মিষ্টির সিরা আনিয়া নিজের বাচ্ছাদের কে খাওয়াইত না এবং উপরে বর্ণিত কথা গুলা যদি সত্যি হয় তাহা হইলে আপনি কোথায় পাবেন খাটি মধু আমার মনে হয় এই পৃথিবীতে আপনি আমি কেহই খাটি মধু কোন খানেই পাবনা কারন মধুর বাসাতে যখন আসল অথবা খাটি মধু পাওয়া জায় তাহা হইলে আর কোথায় পাব খাটি মধু এবং জাহার কারনে বলা হইয়াছে মধুর কোন জন্ম পরিচয় নাই ।

সহ-প্রকাশক,

এস এ আশিক

মাতৃবাংলা ২৪ টিভি

আপডেট নিউজ পেতে,

পেইজ:- মাতৃবাংলা ২৪ টিভি

ওয়েবসাইট:- matribangla.com

ইউটিউব চ্যানেল:- মাতৃবাংলা ২৪ টিভি

 


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.


Theme Created By Raytahost
error: এই সাইটের নিউজ কপি করা বেআইনী !!