Logo
শিরোনাম
নাটোরের স্বাধীনতার আশঙ্কা, দুর্ঘটনার ঘটনা, ২ তালেবাণ দখল করতে হবে তালেবানের ডাকল এলাকা বন্যায় ১৫০ জনের মধ্যে সুন্দর সফল জাদুকরী পদ্ধতি সুন্দর সফল জাদুকরী পদ্ধতি ভাসানচর থেকে পালিয়ে যাওয়া ১০ রোহিঙ্গা বাড়ি ড্যাচ বাংলা ব্যাঙ্ক কর্মী পিকেএসএফ এর নতুন ব্যবস্থাপনা নমিতা হালদার পেস না স্পিন, অস্ট্রেলিয়ার বৈদেশিক বিস্ফোরণ কি বাংলাদেশ? লিবিয়া নৌকা ডুবে ৫৭ জনগণের প্রত্যাশীর মৃত্যু আড়তীদের শতাংশ৯ শতাংশে-মধ্যভুশি, কারণ … কুমিল্লায় পরিবেশে মারধর, স্বর্ণকেন্দ্র ৩ স্বজন কারাগড়া করোনার টিকা চলুন না ফেরার দেশে চলে গেলেন ফকির আলমগীর। জাহাজেরনগর সত্য এক আনন্দ নগর আমি শোকে দেখিঃ কনকচাঁপা সে হোসেনের ঈদ ক্যাটলো যেমন পাটুরিয়ায় ৫ মিনিটের রজনী, তারপরে ফ্রেটি ছুটী দৌলতদিয়া মাননীয় মেয়র জাহাঙ্গীর আলম কে পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা যানিয়েছেন মাতৃবাংলা ২৪ টিভি পরিবার। করোনায় সচেতনতার সাথে কুরবানী করুন।

আই সি ইউ তে আছেন নায়ক ফারুক

দীর্ঘদিন ধরে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন বরেণ্য চিত্রনায়ক ও সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক, নায়ক ফারুক হিসেবে দেশ ও বিদেশে যিনি সু-পরিচিত। এর মধ্যে আড়াই মাসেরও বেশি সময় ধরে আইসিইউতে তিনি। কখনো ভালো, কখনো খারাপ। এই অবস্থায় দেশের অগণিত ভক্তদের মনে নানা শঙ্কা কাজ করছে। সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে ফারুকের স্ত্রী ফারহানা পাঠান সিঙ্গাপুর থেকে মুঠোফোনে সাংবাদিকদের বলেন, আলহামদুলিল্লাহ। ফারুকের অবস্থা আগের থেকে কিছুটা ভালো। তবে তার উন্নতিটা খুব কম। তিনি এখনো আইসিইউতেই আছেন।

এর আগে নিয়মিত চেকআপের জন্য চলতি বছরের মার্চের প্রথম সপ্তাহে সিঙ্গাপুর যান ফারুক। চেকআপের মধ্যেই শারীরিক জটিলতা নিয়ে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ভর্তি হন। ১৫ই মার্চ খিঁচুনি ওঠায় ফারুককে প্রথমবার আইসিইউতে নেয়া হয়। এরপর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে ১৮ই মার্চ কেবিনে স্থানান্তর করা হয়। ২১শে মার্চ হঠাৎ জ্ঞান হারিয়ে ফেললে দ্বিতীয় দফায় তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়, ২৮শে এপ্রিল কেবিনে স্থানান্তরের দুইদিনের ব্যবধানে ১লা মে থেকে আইসিইউতেই এখন পর্যন্ত চলছে ফারুকের চিকিৎসা। চিত্রনায়ক ফারুক ১৯৪৮ সালে ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭১ সালে এইচ আকবর পরিচালিত ‘জলছবি’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে ঢাকাই সিনেমায় অভিষেক হয় তার। এরপর ‘লাঠিয়াল’, ‘সুজন সখী’, ‘নয়নমনি’, ‘সারেং বৌ’, ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’, ‘সাহেব’, ‘আলোর মিছিল’, ‘দিন যায় কথা থাকে’, ‘মিয়া ভাই’সহ শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। ফারুক ১৯৭৫ সালে ‘লাঠিয়াল’ সিনেমার জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। ২০১৬ সালে আজীবন সম্মাননায় ভূষিত হন তিনি।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Design & Maintenance By Abu Bokkor Siddik
error: এই সাইটের নিউজ কপি করা বেআইনী !!