Logo

মোটরসাইকেলচালকদের কথাও ভাবুন, বিকল্পটিও দেখান

দেশে গত জুন মাসে সড়ক দুর্ঘটনায় যত মৃত্যু হয়েছে, তার ৪০ শতাংশ মোটরসাইকেলচালক অথবা আরোহী। একটি সংস্থা সংবাদপত্রের তথ্য সংকলন করে আমাদের এ তথ্য জানিয়েছে। আমরা যেটা জানতে পারিনি সেটি হলো, যানবাহনের সংখ্যার অনুপাতে মৃত্যুর হার কত এবং এই মৃত্যুতে প্রতিটি ক্ষেত্রেই কি মোটরসাইকেলচালক দায়ী?

  1. একটি উদাহরণ দেওয়া যাক। আমাদের স্বপ্নের পদ্মা সেতু চালুর পর সেখানে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই তরুণের মৃত্যু হয়। যেহেতু দুর্ঘটনাটি মোটরসাইকেলের, তাই আমরা হয়তো ধরেই নিয়েছি দোষ মোটরসাইকেলচালকের। কিন্তু ঘটনার পর একটি ভিডিও চিত্র বের হয়। সেখানে স্পষ্টই দেখা যায়, সেতুর ওপরে একটি মাইক্রোবাস থামানো ছিল। তার পাশে সেতুর ওপরের রাস্তায় শুয়ে কয়েক ব্যক্তি ছবি তুলেছিলেন। মোটরসাইকেলের চালক মূলত তাঁদের বাঁচাতে গিয়েই প্রাণ দিয়েছেন।

প্রশ্ন হলো, পদ্মা সেতুর মতো স্থাপনায় সন্ধ্যার পর সড়কের ওপর শুয়ে কারও ছবি তোলার কথা কি না। সেতুর পাশে দাঁড়িয়ে মানুষ ছবি তুলতে পারে, এ বিষয়ে যানবাহনের চালকদের সতর্ক থাকা দরকার। কিন্তু সড়কের মধ্যে আবছা আলোয় শুয়ে কেউ ছবি তুলবেন, সেটা মনে হয় কোনো চালকই মাথায় রাখবেন না।

যা-ই হোক, দুর্ঘটনাটির পর পদ্মা সেতু দিয়ে মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ হয়েছে। কিন্তু কারা পদ্মা সেতুতে নিষিদ্ধ থাকার পরও মাইক্রোবাস থামিয়েছিলেন, সড়কে শুয়ে ছবি তুলছিলেন; সেই খোঁজ নেওয়া হয়েছে, তাঁদের ধরা হয়েছে—এমন খবর আমরা পত্রিকায় দেখিনি। বরং দেখছি, মোটরসাইকেলের ওপর একের পর এক বিধিনিষেধ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost
error: এই সাইটের নিউজ কপি করা বেআইনী !!