Logo
শিরোনাম:
গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন ২২ নং ওয়ার্ডের গজারিয়া পাড়ায় রাস্তায় মাজে বেড়া। আজ ৭ মে শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টারের ২০ম শাহাদাৎ বার্ষিকী। গাজীপুর মিডিয়া ক্লাবের উদ্যোগে বিশুদ্ধ খাবার পানি ও স্যালাইন বিতরণ। গাজীপুরে শ্রমিক সংগঠনের উদ্যোগে মহান মে দিবস ও আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস পালিত হয়েছে গাজীপুরে অবশেষে আটক হলো ৬ মামলার আসামী চিহ্নিত চাঁদাবাজ। তীব্র তাপদাহে পুরছে দেশ,অতিষ্ঠ জনজীবন। গাজীপুর মহানগরের তেলিপাড়া এলাকায় একটি তুলার গুদামে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ঢাকা বনবিভাগের অধিনস্থ রাজেন্দ্রপুর রেঞ্জ কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন। ঢাকায় ফাঁকা বাসায় চুরি চক্রের ৭ সদস্য গ্রেফতার। গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের রাজেন্দ্রপুর চৌরাস্তা ময়মনসিংহ রোটে ট্রাকের নিচে মটর সাইকেল।

গাজীপুরে শ্রমিক সংগঠনের উদ্যোগে মহান মে দিবস ও আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস পালিত হয়েছে

মাতৃবাংলা ২৪ টিভি / নিজস্ব প্রতিনিধি

বুধবার (০১মে) ২০২৪ইং বিকাল ৪টায় গাজীপুর মহানগরীর গাছা থানাধীন বোর্ডবাজারের মির্জাপুর সিএনজি স্টেশনের মাঠে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র জায়দা খাতুন।

প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও বর্তমান মেয়রের উপদেষ্টা আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র ও ৩৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাসুদুল হাসান বিল্লাল, প্যানেল মেয়র ও ৩৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ্ব মিজানুর রহমান, প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলর রাখি সরকার, ৩৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম, ৩৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিল ওসমান গনি কাজল,৩৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম- আহবায়ক আনোয়ার হোসেন (এম,এ), বিশিষ্ট আওয়ামী লীগ নেতা শরিফুল ইসলাম খোকনসহ বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক ও বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

শ্রমিক সংগঠনের নেতারা বলেন, এক দেশে দুই নিয়ম থাকতে পারে না। সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য মাতৃত্বকালীন ছুটি ৬মাস আর গার্মেন্টস শ্রমিকদের ছুটি ৪ মাস, এটা আমরা মানি না।

বক্তারা আরো বলেন, বর্তমান সরকার শ্রমিক বান্ধব সরকার, শ্রমিকদের বিভিন্ন দাবি- দাওয়ার ব্যাপারে বর্তমান সরকার অবগত আছেন। আশা করি অতি শীঘ্রই মালিকদের সাথে সমন্বয় করে বর্তমান সরকার আমাদের দাবি-দাওয়া পূরণ করবেন।

বক্তারা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু যেমন ছিলেন বৈষম্যের বিরুদ্ধে সোচ্চার, তেমনি তিনি দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য ছিলেন নিবেদিত প্রাণ।

বঙ্গবন্ধুর অবিসংবাদিত নেতৃত্বে আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামে এদেশের শ্রমজীবী মানুষ গৌরবোজ্জ্বল বীরত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে।

স্বাধীনতা লাভের পর ১৯৭২ সালে বাংলাদেশ বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে মে দিবস পালন শুরু হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শ্রমজীবী মেহনতি মানুষের প্রতি সম্মান জানিয়ে ১ মে সরকারি ছুটি ঘোষণা করেন। বঙ্গবন্ধু পরিত্যক্ত কল- কারখানা জাতীয়করণ করে দেশের অর্থনীতিকে শক্তিশালী ও শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার নিশ্চিত করেছিলেন। ফলে সে সময় হাজার হাজার শ্রমিকের কর্মসংস্থান হয়। জাতির পিতা দীপ্ত কণ্ঠে উচ্চারণ করেছিলেন, ‘বিশ্ব আজ দুভাগে বিভক্ত। একদিকে শোষক, অন্যদিকে শোষিত। আমি শোষিতের দলে।

প্রসঙ্গত, ১৮৮৬ সালের ১ মে যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো শহরের হে মার্কেটের শ্রমিকেরা ন্যায্য মজুরি ও দৈনিক আট ঘণ্টা শ্রমের অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবিতে আন্দোলনে নামেন।শ্রমিকদের এই কর্মসূচির ওপর পুলিশ গুলি চালায়। এতে অনেকে হতাহত হন। শ্রমিকদের এই আত্মত্যাগের মধ্য দিয়ে দৈনিক কাজের সময় আট ঘণ্টা করার দাবি প্রতিষ্ঠিত হওয়ার স্বীকৃতি হিসেবে দিনটি মহান মে দিবস ও আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost
error: এই সাইটের নিউজ কপি করা বেআইনী !!